রবিবার, ১৬ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ২রা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ ||
  • প্রচ্ছদ
  • এক্সক্লুসিভ >> ঢাকা >> পরিবেশ >> স্বাস্থ্য
  • ঢাকার বাইরের মোট ডেঙ্গুতে মৃত্যুর ৪০ শতাংশই দুই হাসপাতালে
  • ঢাকার বাইরের মোট ডেঙ্গুতে মৃত্যুর ৪০ শতাংশই দুই হাসপাতালে

    চলতি বছর ঢাকার বাইরে ডেঙ্গুতে যত রোগী মারা গেছে, এর মধ্যে ৪০ শতাংশের মৃত্যু হয়েছে দুই হাসপাতালে। হাসপাতাল দুটি হলো ফরিদপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল ও বরিশালের শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল। এসব হাসপাতালে ভর্তি রোগীর সংখ্যাও অন্যান্য হাসপাতালের তুলনায় অনেক বেশি। স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

    অধিদপ্তরের তথ্যে দেখা গেছে, ফরিদপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ডেঙ্গু রোগের চিকিৎসা নেওয়া তিন হাজার ৩৪০ রোগীর মধ্যে মারা গেছে ১১৪ জন, যা দেশের হাসপাতালগুলোর মধ্যে মৃত্যুহারে সর্বোচ্চ। এই হাসপাতালে প্রতি ৩০ জন ডেঙ্গু রোগীর মধ্যে একজনের মৃত্যু হয়েছে।বরিশালের শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছে সাত হাজার ৭৫ জন। মৃত্যু ১১৫ জনের।

    প্রতি ৬১ জন ডেঙ্গু রোগীর মধ্যে একজনের মৃত্যু হয়েছে।ফরিদপুরের সিভিল সার্জন ডা. ছিদ্দিকুর রহমান কালের কণ্ঠকে বলেন, ফরিদপুর শহরে রোগী কম। আশপাশের জেলা মাগুরা, রাজবাড়ী, গোপালগঞ্জের কিছু অংশ, শরীয়তপুর, মাদারীপুর থেকে রোগী বেশি আসছে। এসব রোগী সঠিক সময়ে চিকিৎসা পায় না বা চিকিৎসার আওতায় আসে না

    যখন তাদের ডেঙ্গু শনাক্ত হচ্ছে, তখন তারা খারাপ অবস্থায় চলে গেছে।তিনি বলেন, ডেঙ্গু হলে রোগীরা অনেকে সাধারণ জ্বর মনে করে বাড়িতে থাকছে। অবস্থা গুরুতর হলে হাসপাতালে আসছে। এ কারণে বেশির ভাগ রোগীর আইসিইউ সাপোর্ট প্রয়োজন হচ্ছে।বরিশালের শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক সাইফুল ইসলাম কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আমাদের এই হাসপাতাল অনেক পুরনো।

    এখানে বরিশাল বিভাগের ছয়টি জেলা এবং এর সঙ্গে মাদারীপুর, গোপালগঞ্জ, খুলনা ও ঢাকা বিভাগের কিছু অংশের রোগী চিকিৎসা নেয়। প্রাথমিক অবস্থায় রোগীরা সদর হাসপাতালে চিকিৎসা নেয়। অবস্থা আরো খারাপ হলে এসব রোগী এই হাসপাতালে চিকিৎসা নেয়।’তিনি বলেন, ‘আমাদের হাসপাতাল ছাড়া বরিশাল বিভাগের আর কোথাও আইসিইউ নেই। ডেঙ্গুর যেসব রোগী আমাদের এখানে আসে তাদের একটা বড় অংশ শক অবস্থায় আসে। তখন আইসিইউ সাপোর্ট প্রয়োজন।’

    মৃত্যু ১৫, হাসপাতালে ২১০৩

    দেশে গত এক দিনে এডিস মশাবাহিত ডেঙ্গুতে ১৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে ঢাকায় ৯ জন, ঢাকার বাইরে ছয়জন মারা গেছে। একই সময় হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে দুই হাজার ১০৩ জন। ঢাকায় ৪৩৩ জন, ঢাকার বাইরে বিভিন্ন হাসপাতালে এক হাজার ৬৭০ জন। গতকাল রবিবার দেশের ডেঙ্গু পরিস্থিতি নিয়ে এমন তথ্য দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।এ নিয়ে চলতি বছর ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে দুই লাখ ৭৯ হাজার ৯০৪ জন। মৃত্যু হলো এক হাজার ৪০৯ জনের।

    দেশে গত দুই সপ্তাহ ধরে বৃষ্টিপাত না হওয়ায় ডেঙ্গু পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হয়েছে। প্রতিদিন গড়ে এক হাজার ৬৫৭ জনের বেশি ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছে। মৃত্যু হচ্ছে ১০ জনের বেশি। এর মধ্যে ঢাকার বাইরে গড়ে প্রতিদিন মৃত্যু প্রায় ছয়জনের, আক্রান্ত এক হাজার ২৮২ জন। ঢাকায় গড়ে প্রতিদিন মৃত্যু চারজনের। আক্রান্ত ৩৭৪ জন। অর্থাৎ ঢাকার বাইরের পরিস্থিতি এখন উদ্বেগজনক।স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে গত ১৫ দিনের (সেপ্টেম্বর ২২ থেকে গতকাল পর্যন্ত) তথ্য বিশ্লেষণে ডেঙ্গু পরিস্থিতির এমন তথ্য জানা গেছে।

    আরও পড়ুন

    error: Please Contact: 01822 976776 !!