বৃহস্পতিবার, ২৫শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ১০ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ ||
  • প্রচ্ছদ
  • অপরাধ >> এক্সক্লুসিভ >> ফেনী >> সোনাগাজী
  • বারবার শিক্ষার্থীকে যৌন হয়রানি করেও পার পেয়ে যাচ্ছে প্রধান শিক্ষক নারায়ন
  • বারবার শিক্ষার্থীকে যৌন হয়রানি করেও পার পেয়ে যাচ্ছে প্রধান শিক্ষক নারায়ন

    সোনাগাজী প্রতিনিধি:

    সোনাগাজী উপজেলার চরচান্দিয়া ইউনিয়নের সুলতান আহাম্মদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নারায়ন চন্দ্র রায়’র বিরুদ্ধে শিক্ষার্থীকে যৌন হয়রানির অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ক্ষোভে ফুসে উঠেছে শিক্ষার্থী-অভিভাবকরা। এর আগেও কয়েকটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীকে যৌন হয়রানির অভিযোগে অভিযুক্ত হয়েছিলেন প্রধান শিক্ষক নারায়ন চন্দ্র রায়। শিক্ষক-শিক্ষার্থী এবং অভিভাবকরা বলছেন আগের যৌন হয়রানি গুলোর উপযুক্ত শাস্তি না হওয়ায় বারবার শিক্ষার্থীকে যৌন হয়রানি করেও পার পেয়ে যাচ্ছেন প্রধান শিক্ষক নারায়ন চন্দ্র রায়।

    অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, চরচান্দিয়া ইউনিয়নের সুলতান আহাম্মদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নারায়ন চন্দ্র রায় তার স্কুলের ছাত্রীদের (বিশেষ করে চতুর্থ- পঞ্চম শ্রেণির) গায়ে হাত দেয়, জড়িয়ে ধরে এবং মুখে আদর করে যৌন হয়রানিমূলক আচরণ করে থাকে। এতে মেয়েরা খুবই আতঙ্কে থাকে। এ কারণে অনেক শিক্ষার্থী বিদ্যালয়ে আশা বন্ধ করে দিয়েছে। এ ঘটনায় অভিভাবকেরা অত্যন্ত চিন্তিত ও উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছেন।

    নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিদ্যালয়ের দুইজন সহকারী শিক্ষক বলেন, গত ২৭ সেপ্টেম্বর বুধবার কয়েকজন অভিভাবক বিদ্যালয়ে আসেন এবং প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ করেন। প্রধান শিক্ষক ওই দিন প্রধান শিক্ষকদের উপজেলায় মাসিক সমন্বয় সভায় ছিলেন। অভিভাবকরা ক্ষুব্দ ছিলেন, মনে হচ্ছিল প্রধান শিক্ষককে পেলে মারবেন এরকম। অভিভাবকদের কাছ থেকে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ শোনার পর আমরা কয়েকজন শিক্ষার্থীর সাথে কথা বলি। শিক্ষার্থীরা জানায় ‘প্রধান শিক্ষক নারায়ন বিভিন্ন সময় আমাদের গায়ে হাত দেয়, মুখে আদর করার চেষ্টা করে এবং বলে আমরা যেন এ বিষয়গুলো কোন শিক্ষক এবং মা-বাবা কে না জানাই’। শিক্ষার্থীদের সাথে কথা বলার আগে আমরা বিষয়টা জানতাম না। বিষয়টি জানার পর আমাদের ভিতর ক্ষোভের জন্ম হয়েছে। শিশুদের সাথে এমন আচরন কোন ভাবেই মেনে নেয়া যাবেনা। আমরাও এর উপযুক্ত বিচার চাই।

    অভিযোগের বিষয়ে প্রধান শিক্ষক নারায়ন চন্দ্র রায় এর কাছে জানতে তার মুঠোফোন নাম্বারে বারবার কল দিলেও তিনি রিসিভ করেন নি। এ বিষয়ে উপজেলা শিক্ষা অফিসার নজরুল ইসলাম ও সহকারী শিক্ষা অফিসার মো. ওয়াহিদূর রহমান বলেন, প্রধান শিক্ষক নারায়ন চন্দ্র রায় এর বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগের বিষয়ে শিক্ষার্থী-অভিভাবক এবং শিক্ষকদের সাথে কথা বলে নিশ্চিত হয়েছি যৌন হয়রানির ঘটনা ঘটেছে। বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তদন্ত সাপেক্ষে ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এই প্রধান শিক্ষক এর আগেও কয়েকটি বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী যৌন হয়রানির দায়ে অভিযুক্ত হয়েছিলেন। এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার কামরুল হাসান বলেন, শিক্ষার্থী কে যৌন হয়রানির বিষিয়টি গুরুত্ব সহকারে দেখা হচ্ছে। অভিযোগ সত্য হলে কোন ছাড় দেয়া হবেনা। তদন্তে সত্যতা পাওয়া গেলে পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

    শিক্ষক, শিক্ষা অফিস সূত্রে জানা যায়, চরচান্দিয়া নাসির উদ্দিন লন্ডনী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, পশ্চিম চরচান্দিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, সওদাগরহাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের যৌন হয়রানির দায়ে অভিযুক্ত হয়েছিলেন শিক্ষক নারায়ন চন্দ্র রায়। উত্তর পশ্চিম চরদরবেশ হোসেন মাষ্টার সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে যোগদান করতে গেলে এলাকাবাসী তাড়িয়ে দেয়। তাকে প্রধান শিক্ষক হিসেবে যোগদান করতে দেয়নি। বারবার তার বিরুদ্ধে শিক্ষার্থী যৌন হয়রানির অভিযোগ প্রমানিত হলেও তাকে শাস্তি হিসেবে অন্য বিদ্যালয়ে বারবার বদলি করা হয়েছে। আর কোন শাস্তি দেয়া হয়নি।

    আরও পড়ুন

    error: Please Contact: 01822 976776 !!