সোমবার, ২২শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ৭ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ ||
  • প্রচ্ছদ
  • জাতীয়
  • চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ আওয়ামী লীগের এক নিবেদিত প্রাণ জাহিদ হোসেন পাটোয়ারী
  • চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ আওয়ামী লীগের এক নিবেদিত প্রাণ জাহিদ হোসেন পাটোয়ারী

    জাহিদ হোসেন পাটোয়ারী আওয়ামী লীগের এক নিবেদিত প্রাণ। বঙ্গবন্ধুর আদর্শের একজন খাঁটি সৈনিক হিসেবে আন্দোলন সংগ্রামে দাপীয়ে বেড়িয়েছেন রাজনীতির মাঠ। নানা চড়াই উৎরাই পেরিয়ে দীর্ঘ বছর তিনি ত্যাগ স্বীকার করেছেন অনেক।পাশাপাশি একজন দক্ষ সাংগঠনিক নেতা ছিলেন তিনি। তার বাড়ী চাঁদপুর জেলার ফরিদগঞ্জ উপজেলার ৬ নং গুপটি ইউনিয়নের মান্দারতলী গ্রামের মিঞাজান পাটোয়ারী বাড়ী।

    তার ছাত্র রাজনীতির শুরু ১৯৮৪ সালে এইচএসসিতে পড়া লেখা কালীন চাদঁপুরের ফরিদগঞ্জ বঙ্গবন্ধু ডিগ্রী কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন।এরপর ১৯৮৫-৮৬ সালে রামগন্জ সরকারী কলেজে বিএসএস এ অধ্যায়ন রত অবস্থায় ছিলেন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক।তারপর শুরু হয় রাজধানী ঢাকার জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় এ মাষ্টার্স পড়াকালীন সময়ে বিশ্ববিদ্যালয় শাখার দপ্তর ও প্রচার প্রকাশনা সম্পাদক পদে দায়িত্বে থেকে সফল ভাবে ৯০ এর স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনে রাজপথ কাপানোঁ লড়াকু সৈনিক।যার নেতৃত্বে আন্দোলনে ঝাপিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।পড়ালেখা শেষ করে দীর্ঘদিন ঢাকা বঙ্গবন্ধু এভেনিউ দলীয় কার্যালয়ে থেকে দলের সেসময় সংগ্রাম আন্দোলনে থাকা সৈনিক দের দীর্ঘদিন যুক্ত থাকেন। তিনি পড়ালেখা শেষ করে চাকরীতে যোগদান না করে দলকে ভালোবেসে নিজ এলাকায় গিয়ে নতুনভাবে রাজনীতি কেরিয়ার শুরু করেন।১৯৯৬ সালে ৬ নং গুপ্টি পশ্চিম ইউনিয়ন এর আওয়ামীলীগ এর সাংগঠনিক সম্পাদক এর ২০০১ সাল থেকে বিএনপি জামায়াত ক্ষমতায় এসে তার উপর চালায় নির্মম নির্যাতন। মামলার পর মামলায় জর্জরিত করে একাধিক বার কারাগারে প্রেরণ করতে থাকে।তাদের সন্ত্রাসী ছোবল থেকে নিজেকে বাচাঁতে দেশের বিভিন্নস্থানে আশ্রয় নেন। আর্থিকভাবে বহু টাকা পয়সা হারিয়ে কষ্টে দিন যাপন করলেও ভাই কখনো জামায়াত বিএনপির কাছে হার না মেনে নিজের মাথা নত না করে বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে লালিত পালিত করেন।পরবর্তিতে ১/১১ সালে জেল জুলুম নির্যাতনের ফলে শারীরিক ভাবে অসুস্থ হয়ে পড়েন।বর্তমানে তিনি ৬ নং গুপ্টি ইউনিয়ন এর আওয়ামীলীগ এর সন্মানীত সদস্য রয়েছেন।।

    রাজনীতিতে আজ যিনি থাকার কথা অনেক উচ্চ শিখরে কিন্তু তিনি আজ কোথায় আর যারা তথন আওয়ামীলীগের নামও শুনতে পারতো না তারা আজ বড় বড় পদ পদবী সহ বনে গেছেন কোটি কোটি টাকার মালিক।কিন্তু আজ এসব ত্যাগীদের খবর রাখেনা কেউ।

    তিনি একান্ত সাক্ষাৎকারে বলেন- সকল আওয়ামী লীগের কর্মীরা বুকভরা আশা নিয়ে অনেক ত্যাগ স্বীকার করে দলের নেত্রী শেখ হাসিনার দিকে তাকিয়ে আছে। সকলের বিশ্বাস নেত্রী একটি ভালো কিছু উপহার দিবেন, যাদের দিয়ে দলবিরোধী কোন কাজ সংগঠিত হবে না বা দলের ইমেজের কোন ক্ষতি হয় এমন কোন কার্যকলাপে তারা জড়িত হবেন না। সকলেরই বিশ্বাস এই ইমেজকে ধরে রাখতে ত্যাগী এবং দলের প্রতি নিবেদিত প্রাণ কর্মীদের পক্ষ থেকে নেত্রী কাউকে গুরুদায়িত্ব তোলে দিবেন।

    সবশেষে তিনি দল নির্বিশেষে উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডে সকলের দোয়া ও সহযোগিতা প্রত্যাশা করেন।

    আরও পড়ুন

    error: Please Contact: 01822 976776 !!