শুক্রবার, ১৯শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ৪ঠা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ ||
  • প্রচ্ছদ
  • ফেনী >> সোনাগাজী
  • সোনাগাজীতে করোনা উপসর্গে মৃত্যুতে পাশে ছিলো না কেউ, মিথ্যা সংবাদে ক্ষোভ প্রকাশ
  • সোনাগাজীতে করোনা উপসর্গে মৃত্যুতে পাশে ছিলো না কেউ, মিথ্যা সংবাদে ক্ষোভ প্রকাশ

    ফেনীর সোনাগাজী উপজেলার মতিগঞ্জ ইউনিয়নের ভাদাদিয়া গ্রামে করোনা উপসর্গ নিয়ে ছেলে সাহাব উদ্দিন মারা গেলো মায়ের কোলে তবু জনপ্রিয়তা পেতে নামীদামী সংবাদ মাধ্যমসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কল্পকাহিনী সাজিয়ে তুলে ধরা হয়েছে যে নিহত সাহাব উদ্দিনের মৃত্যুর সময় পাশে ছিলো না পরিবারের কেউ।এমনকি অসুস্থ অবস্থায় তাকে এক ফোটা পানি খেতে না দিয়ে ঘরবন্দি রেখে পালিয়ে যায় পরিবার সদস্যরা। জানাযা সহ দাফনের সময়ও পাশে ছিলো না কেউ। তাই এমন নেক্কারজনক গল্প বানিয়ে ঐ পরিবারকে সমাজের নিকট হেয় প্রতিপন্ন করায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ভুক্তভোগী পরিবারটি।

    মৃত্যুবরণ কারী সাহাব উদ্দিনের মা জানান, চট্রগ্রামের একটি পেট্রোল পাম্পে চাকুরীরত অবস্থায় অসুস্থতা বোধ করে সাহাব উদ্দিন। একপর্যায় গত ২৯ মে সে কাশি সহ শ্বাসকষ্ট নিয়ে গ্রামের বাড়ীতে ফিরে।এসময় তার সম্পূর্ণ দেখভালের দিয়েত্বে ছিলো তারা। এরপর চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী বাড়ীতেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৩১ মে তার মৃত্যু হয়। এর আগের দিন পরিবারসহ তার নমুনা দেয়া হয় সোনাগাজী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে। কিন্তু বিষয়টি নিয়ে বিভিন্ন মাধ্যমে গুজব ছড়ায় মৃত্যুর সময় সাহাব উদ্দিনের পাশে পরিবারের কাউকে পাওয়া যায়নি এবং মৃত্যুর আগে তাকে ঘরবন্দি রেখে ছিটকানি দিয়ে পানি পর্যন্ত খেতে দেয়া হয়নি । পরে মুহূর্তেই সংবাদটিতে নিন্দা জানিয়ে ভাইরাল হয় দেশজুড়ে।আর ঘটনাটিকে অমানবিক সাজিয়ে ভিন্নভাবে সমাজে তুলে ধরেছে একটি চক্র। অথচ এমনিতে ছেলের শোকে কাতর ছিলেন তারা। তার উপর এমন সংবাদ প্রচার করায় নিন্দাসহ ক্ষোভ প্রকাশ করেন তিনি।

    মতিগন্জ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান রবি উজ্জামান বাবু জানান, ঘটনার পর বিষয়টি নিয়ে তার বক্তব্য এ্যডিট করে ভিন্ন খাতে অপপ্রচার চালানো হয়েছে।

    উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা অজিত দেব জানান, বিষয়টি ক্ষতিয়ে জানা যায় শাহাবউদ্দিনের করোনা উপসর্গে মৃত্যু হয় সঠিক। তবে মৃত্যুর আগে ও পরে তার পরিবারের কোন অবিহেলা বা গাফলতি ছিলনা।তবু এটিকে ভিন্ন ভাবে প্রচার করা হয়েছে।

    বিষয়টি নিয়ে অপপ্রচার কারীদের বিরুদ্ধে প্রশাসন দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির ব্যবস্থা নেবে প্রত্যাশা ভুক্তভোগী পরিবারের।

    আরও পড়ুন

    error: Please Contact: 01822 976776 !!