সোমবার, ২২শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ৭ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ ||
  • প্রচ্ছদ
  • অন্যান্য >> ছাগলনাইয়া >> জাতীয় >> দাগনভূঞা >> পরশুরাম >> ফুলগাজী >> ফেনী >> ফেনী সদর >> সোনাগাজী
  • স্বাভাবিক কার্যক্রমের আওতায় আনা হচ্ছে করোনা মুক্ত উপজেলাগুলো
  • স্বাভাবিক কার্যক্রমের আওতায় আনা হচ্ছে করোনা মুক্ত উপজেলাগুলো

    যেসব জেলা-উপজেলায় করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) এখনো আঘাত হানেনি অর্থাৎ কোনো রোগী এখন শনাক্ত হয়নি সেসব জেলা-উপজেলাগুলো স্বাভাবিক কাজকর্মের জন্য খুলে দিচ্ছে সরকার। তবে এসব এলাকায় বহিরাগতদের কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ করা হবে । এমন কথা জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর।

    স্বাস্থ্য অধিদফতর জানায়, দেশের যেসব জেলা-উপজেলাগুলোয় এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাস সংক্রমণমুক্ত রয়েছে, সেসব এলাকায় বহিরাগতদের কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ করে বিশেষ ব্যবস্থাপনায় যুক্তিসঙ্গতভাবে স্বাভাবিক কার্যক্রম অব্যাহত রাখা যাবে।

    জেলা থেকে অন্য জেলা এবং এক উপজেলা থেকে অন্য উপজেলায় জনসাধারণের চলাচল কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রিত থাকবে। জেলা প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী এ নিয়ন্ত্রণ সতর্কভাবে বাস্তবায়ন করবে।

    চলাচল নিষেধাজ্ঞাকালীন জনসাধারণ এবং সব কর্তৃপক্ষকে অবশ্যই স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ থেকে জারিকৃত নির্দেশমালা কঠোরভাবে মেনে চলতে হবে।

    স্বাস্থ্য অধিদফতর কর্তৃক প্রস্তুতকৃত কারিগরি নির্দেশনাগুলো সর্বস্তরে বাস্তবায়নের পরামর্শও দেওয়া হয়েছে ওই নির্দেশনায়।

    বুধবার (৬ মে) স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ স্বাক্ষরিত এক সরকারি ঘোষণায় এ তথ্য জানানো হয়।

    ঘোষণায় বলা হয়, ইতোপূর্বে সংক্রামক রোগ (প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূল) আইন, ২০১৮) (২০১৮ সালের ৬১নং আইন)-এর ১১(১) ধারার ক্ষমতাবলে স্বাস্থ্য অধিদফতরের ১৬ এপ্রিল তারিখের স্বা:অধি:/করোনা/২০২০-৩৪ নং স্বারকে ঘোষণায় উল্লিখিত নির্দেশনাসমূহ নিপুণভাবে পরিবর্তিত হবে।

    নির্দেশনার মধ্যে আছে, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রশমনে জনগণকে অবশ্যই ঘরে অবস্থান করতে হবে। সন্ধ্যা ৬টার স্থলে রাত ৮টা থেকে সকাল ৬টা পর্যন্ত অতীব জরুরি প্রয়োজন (প্রয়োজনীয় ক্রয়-বিক্রয়, খাদ্যদ্রব্য, ওষুধ ক্রয়, চিকিৎসাসেবা, মৃতদেহ সৎকার ইত্যাদি) ব্যতীত কোনোভাবেই বাড়ির বাইরে আসা যাবে না। এক জেলা থেকে অন্য জেলা এবং এক উপজেলা থেকে অন্য উপজেলায় জনসাধারণের চলাচল কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রিত থাকবে। জেলা প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী এ নিয়ন্ত্রণ সতর্কভাবে বাস্তবায়ন করবে।

    চলাচল নিষেধাজ্ঞাকালীন জনসাধারণ এবং সব কর্তৃপক্ষকে অবশ্যই স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ থেকে জারিকৃত নির্দেশমালা কঠোরভাবে মেনে চলতে হবে।
    স্বাস্থ্য অধিদফতর কর্তৃক প্রস্তুতকৃত কারিগরি নির্দেশনাগুলো সর্বস্তরে বাস্তবায়নের পরামর্শও দেওয়া হয়েছে ওই নির্দেশনায়।

    আরও পড়ুন

    error: Please Contact: 01822 976776 !!